শনিবার, ০৮ অগাস্ট ২০২০, ০৯:৪০ অপরাহ্ন

একটু সহযোগিতা পেলে সুস্থ হবেন পীরগঞ্জের সাহেলা

স্টাফ রিপোর্টার: ‘মা, আব্বা আর বোন ছাড়া আমার কেউ আপন নয়। যদিও স্বামী ছিল আমার অসুখ শুরুর প্রথম দিক থেকেই ১০বছর আগে আমাকে আমার বাবার বাড়িতে রেখে গেছেন। আর কোন খবর নেননি। এখন আমার ছেলেকে নিয়ে বাবার বাড়িতেই আছি।

আমার এখন পায়ের ও বুকের সমস্যা। হাটতে পারিনা কোনো কাজ করতে পারি না। ‘ মাত্র ৩০ বছর বয়সী এই মেয়েটি খুব নিচু সুরে কথাগুলো বলছিল। তার ছোট্ট বুকটা চিরে বের হয়ে আসছিল হাহাকার।

বিয়ের ১বছরের মাথায় মাথায় এক ছেলে সন্তান প্রসবের পর থেকে এই অজ্ঞাত এক জটিল রোগে আক্রান্ত হয় সে।

এ অজ্ঞাত রোগে বিছানা বন্দি পড়েছে তার জীবন। অনেকেই তাকে সান্তনা দেন কিন্তু ঔষধ কিনে দেননা কেউ কেঁদে কেঁদে জানান সে। তার পা গুলো অনেকবার ভেঙ্গেছে হাঁটলেই পা ভেঙ্গে যায় পায়ের হাড় গুলো অনেক নরম ও পায়ের তালু গুলোতে অনেক জ্বালাপোড়া হয়।

সে ঠাকুরগাঁও জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার ২নং কোষারানীগঞ্জ ইউনিয়নের বাজার দিহা গ্রামের কৃষক মামুনুর রশিদের দ্বিতীয় মেয়ে সাহেলা বেগম। ১০ বছর আগে বিয়ে হয় তার কিন্তু অসুখের সময় আমার শশুর বাড়ীর লোকজন আমাকে আমার বাবার বাড়িতে রেখে গেছেন। আর কোন খবর নেননি।

সাহেলার বাবা মামুনূর রশিদ মামুন জানান, সাহেলা স্বাভাবিকভাবে চলাফেরা করতে পারে না। এই ১০ বছরে ডাক্তার দেখিয়েছি অনেক, কিন্তু কোনো লাভ হয়নি। আমি আমার এই মেয়ের চিকিৎসা করতে করতে ১৫ লক্ষ টাকা খরচ করেছি আর কোন সামর্থ্য নেই আজ আমি অসহায় হয়ে পড়েছি। এখন কোনো প্রকার ঔষধ-পত্র কেনার টাকা নেই আমার পরিবারের।

কোনো সরকারি সহযোগিতা বা স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সহযোগীতা পেলে আমার মেয়ের চিকিৎসা চলতো। ফলে দিন দিন তার রোগটি বেড়েই চলছে বলে সাহেলার মা জানান।

এ ব্যাপারে কোষারানীগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা আলম বলেন, এ রোগের চিকিৎসা করা ব্যয়বহুল। সরকার ও বিত্তবান সাধারণ মানুষ এগিয়ে আসলে চিকিৎসা করা সম্ভব হবে। তার বাবা-মা খুবই গরীব।

তাই সর্বশেষে বলতে চাই আমরা তার চিকিৎসার কাজে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়ে বলি মানুষ মানুষের জন্য। তার বাবা মামুনুর রশিদ মামুন মোবাইল নাম্বার ও বিকাশ নাম্বার ০১৭৩৮৫১৭৪৫৩,,,

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




কপি পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। উত্তরের কন্ঠ[ডট]কম
themebazaruttorerka234
error: Content is protected !!