শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১, ১১:৪৮ অপরাহ্ন

পীরগঞ্জে এক বিধবাকে বসতবাড়ী থেকে উচ্ছেদ থানায় মামলা

পীরগঞ্জে এক বিধবাকে বসতবাড়ী থেকে উচ্ছেদ থানায় মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ পীরগঞ্জে এক বিধবাকে বসতবাড়ী থেকে উচ্ছেদ ও ঘরে থাকা মালামাল লুটপাট করেছে এলাকার প্রভাবশালী ও কতিপয় ভূমিদুস্য। ঘঁনাটি ঘটেছে রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার মিঠিপুর ইউনিয়নের রওশনপুর গ্রামে। মামলা ও এজাহার সুত্রে জানা গেছে, রওশনপুর গ্রামের মৃত: তছলিম উদ্দিনের পুত্র মাহাবুর রহমান অসুস্থ্যতায় মৃত্যুবরণ করলে স্ত্রী দুলালী বেগম ৩ সন্তান নিয়ে নিঃস্ব হয়ে পড়েন।

পূর্ব শত্রæতার জেরে পৈত্রিক সুত্রে পাওয়া জেলা- রংপুর, থানা- পীরগঞ্জ, মৌজা- রওশনপুর, জেএল নং- ২২০, খতিয়ান ও নতুন দাগ নং- ২৪৭৬ দাগে মোট- ৪ শতক জমিতে বসতবাড়ী নির্মাণ করে আসছেন মাহাবুর রহমান।

মাহাবুরের মৃত্যুর ৩ দিন পর উক্ত জমি দখল পূর্বক ৩টি ইটের তৈরী ঘর, খাট, সোকেচ যাবতীয় আসবাবপত্রসহ প্রায় ১০ লক্ষ টাকার মালামাল লুটপাট করে নিয়ে যায়, প্রতিবেশী মৃত: রজ্জব আলীর পুত্র রাশেদুল ইসলাম, শহিদুল ইসলাম, হামিদুল ইসলাম, হাছেন আলীর পুত্র শাকিরুল ইসলাম, মৃত: আ: আজিজের পুত্র মমিন মিয়া, হাসেন আলী, নইমুদ্দিনের পুত্র ময়নুল ইসলাম, তছলিম উদ্দিনের পুত্র ইলিয়াস বাবু, মমদেল হোসেনের পুত্র তারা মন্ডল, মিলন মিয়া। ভুক্তভোগী দুলালী বেগম বলেন, স্বামী বাড়ীতে না থাকার সুবাদে শাকিরুল ও হামিদুল বিভিন্ন ভাবে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসতো। তাদের প্রস্তাবে রাজি না হলে আমাকে তখন থেকেই মানসিক শারীরিক নির্যাতন করা হছে। দীর্ঘদিন ধরে আমাদেরকে উচ্ছেদ করার পায়তারা করে আসছেন রাশেদুলগং।

অপরদিকে, জীবন জীবিকার তাগিদে দুলালী বেগম ও তার স্বামীসহ ঢাকায় গার্মেন্টসে চাকুরী করতো। স্বামী অসুস্থ হয়ে পড়লে গত ২৩ মার্চ তাকে বাড়ী রেখে বেতন ভাতা নেওয়ার জন্য ঢাকায় যায়। ৩০ মার্চ তার স্বামী মারা গেলে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে স্বামীর বংশের প্রতিবেশীরা গত ১৪ এপ্রিল রাশেদুলগং বাড়ীতে প্রবেশ করে ধাড়ালো অস্ত্র দেখিয়ে তাদেরকে বাড়ী থেকে তাড়িয়ে দেয়। সরে জমিন ঘুরে দেখা গেছে, বাড়ীর কোন চিহ্ন রাখেনি রাশেদুলগং। স্বামী হারা দুলালী বেগম ৩ সন্তান মাওয়া খাতুন (১২), মামনী আক্তার আফরোজা (১০), মাহমুদ হাসান তামিম (০৫) কে নিয়ে বাবার বাড়ীতে অবস্থান করছেন। এ ব্যাপারে দুলালী বেগম বাদী হয়ে ১৪ জনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং- ৪৬, তাং-২২/০৪/২১ইং। মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা এস.আই মিজানুর রহমান জানান, ঘটনাটি সত্য। তবে আসামীদের ধরার জোর প্রচেষ্টা চলছে।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




কপি পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। উত্তরের কন্ঠ[ডট]কম
themebazaruttorerka234
error: Content is protected !!